সিলেটে রাতারগুলে প্রবেশ, ভিডিও ধারণ ও নৌকা ভ্রমণের ক্ষেত্রে সরকারকে ফি দিতে হবে। এরই মধ্যে ফি নির্ধারণ করে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপন বলা হয়েছে, রাতারগুল বিশেষ জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে সবাইকে ফি দিয়েই প্রবেশ করতে হবে।

  • প্রাপ্ত বয়স্কদের প্রবেশ ফি ৫০ টাকা।
  • অপ্রাপ্তবয়স্ক (১২ বছরের নিচে) প্রবেশ ফি ২৫ টাকা।
  • পরিচয়পত্রধারী ছাত্রছাত্রীদের প্রবেশ ফি ২৫ টাকা।
  • বিদেশি নাগরিকদের প্রবেশ ফি ৫০০ টাকা।
  • প্রতিদিনের ফিল্মমিং ফি (প্রতি ক্যামেরা) ১০ হাজার টাকা।

নৌকা ভ্রমণে নির্ধারিত ফি-

  • দেশি দর্শনার্থীদের প্রতিবার নৌকা (ইঞ্জিনবিহীন) ভ্রমণের ক্ষেত্রে ১০০ টাকা দিতে হবে।
  • এক্ষেত্রে বিদেশিদের দিতে হবে এক হাজার টাকা।

গাড়ি পার্কিং এর জন্যে নির্ধারিত ফি –

  • বাস বা ট্রাকের প্রতিবারের পার্কিং ফি ২০০ টাকা।
  • পিকআপ/জিপ/কার/মাইক্রোবাস পার্কিং ফি ১০০ টাকা এবং
  • সিএনজি/মোটরসাইকেল পার্কিং ফি ২৫ টাকা।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পর এই ফি নির্ধারণ করেছে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়। করোনা ভাইরাসের কারণে গত ২৬ মার্চ থেকে রাতারগুলে দর্শনার্থীদের প্রবেশ সীমিত ছিল। ১ নভেম্বর থেকে তা উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। এখন এই নির্ধারিত ফি বাস্তবায়নে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।