প্রত্নতত্ত্বের নিদর্শন দেখতে যারা আগ্রহী তারা বাংলাদেশে নরসিংদীর বেলাবো উপজেলায় অবস্থিত উয়ারী ও বটেশ্বর নামের দুই গ্রামব্যপী বিস্তৃত প্রত্নতাত্তিক স্থান ঘুরে আসতে পারেন। ধারণা করা হয় এটি মাটির নিচে থাকা একটি বিশাল দুর্গের চিহ্ন বহন করে। এই দুই নিদর্শনের মধ্যে উয়ারী আকারে বড়। পুরনো ব্রহ্মপুত্র নদের অববাহিকায় অবস্থিত উয়ারী বটেশ্বর (Wari Bateshwar) গ্রাম দুটি তৎকালীন সময়ে নদী বন্দর ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্যকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত ছিল।

সর্বপ্রথম ১৯৩৩ সালে শ্রমিকরা মাটি খননকালে একটি কলসী পান এবং এতে বঙ্গভারতের প্রাচীনতম রৌপ্যমুদ্রা ছিল। ১৯৫৫ সালে স্থানীয় শ্রমিকরা ত্রিকোণাকৃতি ও এক মুখ চোখা ভারী দুটি লৌহপিন্ডের সন্ধান পায়। এরপর বিভিন্ন সময়ে উয়ারী বটেশ্বর হতে নানা প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন যেমন বিষ্ণুপট, পাথরের গুটিকা, লৌহ কুঠার, বল্লম, ব্রোঞ্জের পাত্র ইত্যাদি আবিষ্কৃত হয়। এসকল নিদর্শনের বেশকিছু মানুষের অজ্ঞানতা ও অর্থ লোভের কারণে চিরতরে হারিয়ে গেছে। বেচে যাওয়া নিদর্শনের বেশকিছু নরসিংদির প্রত্নতাত্ত্বিক জনাব হাবিবুল্লাহর ব্যক্তিগত সংগ্রহশালা এবং বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে সংরক্ষিত আছে।

প্রায় আড়াই হাজার বছর আগে নির্মিত দুর্গ, নগর, রাস্তা ও মুদ্রা ভান্ডারসহ অনেক নিদর্শন উয়ারী বটেশ্বর হতে আবিষ্কৃত হয়েছে। বিখ্যাত গ্রীক ভূগোলবিদ টলেমীর ‘জিওগ্রাফিয়া’ বইয়ে উল্লেখিত ‘সোনাগড়া’ নামে উল্লেখিত ধনী ও উন্নত প্রাচীন শহর উয়ারী ও বটেশ্বরের সাথে ৪০০০ কিলোমিটার সিল্করুটের সংযোগ ছিল। তাই উয়ারী ও বটেশ্বরকে বাংলাদেশের প্রাচীনতম মহাজনপদ হিসাবে মনে করা হয়।

কিভাবে যাবেন

রাজধানী ঢাকার গুলিস্তান ও সায়েদাবাদ থেকে বিভিন্ন পরিবহণের বাস সরাসরি ঢাকা-নরসিংদী রুটে যাতায়াত করে। এছাড়া কমলাপুর বা বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন হতে ট্রেনে নরসিংদী (Narsingdi) ভ্রমণ করা যায়। আবার মহাখালী থেকে ভৈরবগামী বিআরটিসি বাসে জনপ্রতি ১০০ টাকা ভাড়ায় দুই ঘণ্টায় ভৈরবের মরজাল বাসস্ট্যান্ডে যাওয়া যায়। সেখান থেকে লোকালে জনপ্রতি ৩০ টাকা বা ১২০-১৫০ টাকায় সিএনজি রিজার্ভ নিয়ে সরাসরি উয়ারী বটেশ্বর যাওয়া যায়।

কোথায় থাকবেন

উয়ারী বটেশ্বরে একটি সরকারী ডাকবাংলো আছে। এখানে থাকার জন্য এর চেয়ে ভাল ও সুন্দর জায়গা পাওয়া যাবে না। ডাকবাংলোটি বুকিং দিতে নন-রুমের জন্য ৫০০ টাকা এবং এসি রুমের জন্য ১২০০ টাকা খরচ করতে হবে। আর কেয়ারটেকারের সাথে কথা বলে খাবারের ব্যবস্থা করা যায়। কেয়ারটেকার লিটনের ফোন নাম্বার- ০১৯৩৩-২৫১২৪২।

এছাড়াও নরসিংদী জেলা শহরে বিভিন্ন মানের কয়েকটি আবাসিক হোটেলে স্বল্প মূল্যে রাত্রিযাপনের সুযোগ রয়েছে।

ম্যাপে উয়ারী বটেশ্বর

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।