রাজধানী ঢাকার কেরানীগঞ্জের সাউথ টাউন আবাসিক প্রকল্পে সাউথ টাউন জামে মসজিদ (South Town Jame Masjid) অবস্থিত। নজরকারা স্থাপত্যশৈলী ও বৈচিত্র্যময় নির্মাণ মসজিদকে দিয়েছে বাড়তি স্বতন্ত্রতা। মসজিদ মূলত প্রাথর্নার স্থান হলেও নির্মাণশৈলীর নান্দ্যনিকতায় সৌন্দর্য প্রেমী মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে সাউথ টাউন জামে মসজিদ। তাই সহজেই দেশজুড়ে মানুষের কাছে পৌঁছে গেছে এই মসজিদের বার্তা। ফলে প্রতিদিন অনেক দর্শনার্থী মসজিদটি দেখতে ও নামাজ আদায় করতে আসেন।

প্রায় দুই বছর সময় ধরে নির্মিত সাউথ টাউন মসজিদে প্রবেশের জন্য পূর্ব দিকে ৩টি প্রধান ফটক ও দুই পাশে একটি করে মোট ৫টি প্রবেশ পথ রয়েছে। আর মসজিদের অভ্যন্তরে আলোবাতাস প্রবেশের জন্য আছে অসংখ্য জানালা। আধ বিঘা জমির উপর প্রতিষ্ঠিত মসজিদটিতে একত্রে প্রায় ৬০০ মুসল্লি নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা আছে৷

যেভাবে যাবেন

ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে লেগুনা বা বাসে পোস্তগোলা ব্রিজ পাড় হয়ে অন্য লেগুনায় চড়ে কেরানীগঞ্জ সেন্ট্রাল জেল গেট নামতে হবে। জেল গেট মিনিট পাঁচেক হাটলে সাউথ টাউন আবাসিক প্রকল্পে পৌঁছাতে পারবেন।

এছাড়া গুলিস্তান থেকে বাবুবাজার ব্রিজ এসে বাস বা সিএনজি চড়ে ঢাকা মাওয়া হাইওয়ের রাজেন্দ্রপুরে অবস্থিত নতুন কারাগারের একটু সামনে সাউথ টাউন আবাসিক প্রকল্পে যেতে পারবেন।

ফিচার ইমেজ: সাইফ শাকিল

ম্যাপে সাউথ টাউন জামে মসজিদ

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।