কর্মব্যস্ত জীবনের একঘেয়েমি কাটাতে সোহাগ পল্লী রিসোর্ট (Shohagh Polli Resort) বাংলাদেশের সেরা একটি স্থান। গাজীপুরের চন্দ্রা মোড় থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে কালামপুর গ্রামে প্রায় ১১ একর জায়গার জায়গা জুড়ে কোলাহল মুক্ত পরিবেশে সবুজের আলিঙ্গনে গড়ে তোলা হয়েছে সোহাগ পল্লী। সোহাগ পল্লীতে নির্মিত ঝুলন্ত সাঁকোর পিলার এবং বেলকনিতে খোঁদাই করা কারুকাজ এখানে আগত অতিথিদের আকর্ষণ করে। এখানে রয়েছে কৃত্রিমভাবে নির্মিত লেক, যেখানে সারা বছরই পানি থাকে আর সেই পানিতে দেখা মেলে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। সোহাগ পল্লীতে আবাসনের জন্য রয়েছে বেশকিছু উন্নতমানের কটেজ। আর কটেজের সামনে দিয়ে বয়ে যাওয়া লেক যেন ইতালির ভেনিসের কোন সাজানো গ্রামের প্রতিচ্ছবি।

এছাড়া এখানে রয়েছে মেজবান নামের একটি দ্বিতল রেস্টুরেন্ট, সুইমিং পুল ও কনফারেন্সের জন্য হল রুম। আর বাচ্চাদের চিত্তবিনোদনের বিভিন্ন উপকরনের পাশাপাশি এখানে স্থাপন করা হয়েছে আকর্ষণীয় কিছু প্রতিকৃতি। সোহাগ পল্লীতে সার্বক্ষণিক সেবা দেয়ার জন্য ৪০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছে।

প্রবেশ মূল্য
সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য সোহাগ পল্লী প্রবেশ ফি ২০০ টাকা।

যোগাযোগ
সোহাগ পল্লীতে বুকিং দিতে এবং বিস্তারিত তথ্যে জানতে:
Mobile: 01321213232, 01321156888
Email: hello@shohagpolli.com
Web: www.shohagpolli.com

কিভাবে যাবেন

সোহাগ পল্লীতে যেতে হলে সবচেয়ে সুবিধাজনক মাধ্যম হচ্ছে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা। যদি নিজস্ব ব্যবস্থা না থাকে তবে যাত্রীবাহী বাসে চড়ে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রা মোড়ে নেমে সেখান থেকে অটোরিক্সা বা সিএনজি ভাড়া করে সরাসরি ৪ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে অবস্থিত সোহাগ পল্লীতে যাওয়া যায়।

ঢাকার আশেপাশে সুন্দর রিসোর্ট গুলো

ভ্রমণ সংক্রান্ত যে কোন তথ্য ও আপডেট জানতে ফলো করুন আমাদের ফেসবুক পেইজ এবং জয়েন করুন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে

ম্যাপে সোহাগ পল্লী

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।