ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলায় ভারত সীমান্তের কাছে গ্রাম বাংলার লোক সংস্কৃতির বিভিন্ন উপকরণের সমন্বয়ে শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্ট (Shamser Gazir Bansher Kella Resort) গড়ে তোলা হয়েছে। নবাব সিরাজদৌল্লার আমলে “ভাঁটির বাঘ” হিসেবে পরিচিত শমসের গাজী একাধারে ছিলেন ত্রিপুরা রাজ্যের রাজা, ব্রিটিশ বিরোধী বিপ্লবী এবং ত্রিপুরার রোশনাবাদ পরগণার কৃষক বিদ্রোহের নায়ক। সোনাপুরে শমসের গাজীর স্মৃতিচিহ্নকে কেন্দ্র করে তাঁর উত্তরসূরিরা প্রায় ৫ একর জায়গার উপর শৈল্পিক আয়োজনে এই রিসোর্টটি গড়ে নির্মাণ করেন।

প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশের মধ্যমণি শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্টটি থাইল্যান্ড ও জাপানের রেস্ট হাউজের আদলে নির্মাণ করা হয়েছে। রিসোর্টের ভিতর ও বাইরের স্থাপত্যে বাঁশের ব্যবহারের পাশাপাশি স্থান পেয়েছে বাঁশের তৈরী বিভিন্ন আসবাপত্র ও শিল্পকর্ম। রিসোর্টে প্রবেশের সাথে সাথে ঐকতান নামের একটি দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্য নজরে পড়ে। আর রিসোর্টের আঙ্গিনায় রয়েছে সুউচ্চ বাঁশের সারি এবং সাহিত্য আড্ডা বা যেকোন মুক্ত অনুষ্ঠানের আয়োজনের জন্য আছে খাগড়াছড়ির ঐতিহ্যবাহী পাহাড়ি বাড়ীর আদলে নির্মিত বাঁশের মাচাং ঘর।

শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্টে রেস্টুরেন্ট, পাঠকক্ষ, অতিথি কক্ষ, টি কর্ণার ছাড়াও আছে লন, ফোয়ারা, দৃষ্টিনন্দন লেক ও সুদৃশ্য ব্রিজ। আর লেকের পানিতে ঘুরে বেড়ানোর জন্য রয়েছে নৌকার ব্যবস্থা। রিসোর্টের পাশে প্রতিষ্ঠাতা তথা শমসের গাজীর দুইটি কাঁচা ঘর অক্ষত অবস্থায় রয়েছে। অতিথিদের টুকিটাকি কেনাকাটার জন্য খুচরা দোকান ও চা-কফির স্টল আছে। অগ্রিম বুকিং দিয়ে এখানে বিভিন্ন সভা-সেমিনার, বিয়ে, বনভোজন এবং বার-বি-কিউ আয়োজনের সু-ব্যবস্থা আছে।

নির্মাণশৈলীর ভিন্নতায় ভ্রমণ পিপাসুদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠা এই কেল্লায় প্রায়শই বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে। এছাড়া পার্শ্ববর্তী ত্রিপুরা রাজ্য থেকে আগত পাহাড়ীদের নৃত্য এই রিসোর্টের বিনোদন আয়োজনের এক অন্যতম অনুষঙ্গ।

প্রবেশমূল্য ও রিসোর্ট খরচ

শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্টের সিঙ্গেল বেডের রুমের ভাড়া ৩০০০-৩৫০০ টাকা এবং ডাবল বেডের রুমের ভাড়া ৭০০০ টাকা। এছাড়া ২০ টাকা প্রবেশ মূল্যের বিনিময়ে যেকোন আগ্রহী দর্শনার্থী রিসোর্টের চারপাশ ঘুরে দেখতে পারেন।

যোগাযোগ
জগন্নাথ-সোনাপুর, শুভপুর, ছাগলনাইয়া, ফেনী
মোবাইল: ০১৭৬৭-৮৬৩৫৫৮

কিভাবে যাবেন

শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা যেতে হলে প্রথমে বাস বা নিজস্ব পরিবহণে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দিয়ে বারইয়াহাট নামক স্থানে আসতে হবে। এরপর রামগড় রোড দিয়ে শুভপুর বাজার থেকে সোজা পূর্বদিকে প্রায় ৩ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিলেই শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্ট দেখতে পাবেন। এছাড়া ফেনী জেলা শহর হতে ছাগলনাইয়া ও শুভপুর হয়ে রিক্সা বা লেগুনায় চড়ে শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্টে যাওয়া যায়।

কোথায় থাকবেন

শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্ট এছাড়াও চাইলে ফেনী জেলায় অবস্থিত হোটেল বিলাস, হোটেল আল করিম, হোটেল গাজী কিংবা হোটেল মিড নাইটে রাত্রিযাপন করতে পারবেন।

ফেনীর অন্যান্য দর্শনীয় স্থান

ফেনী জেলার অন্যান্য দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রাজাঝির দীঘি, প্রতাপপুর জমিদার বাড়ি ও আব্দুস সালাম স্মৃতি জাদুঘর অন্যতম।

ফিচার ইমেজ: শাহরিয়ার সৌরভ

ম্যাপে শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা রিসোর্ট

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।