নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার উপজেলার সাতগ্রামে ব্রিটিশ আমলে নির্মিত ঐতিহাসিক সাতগ্রাম জমিদার বাড়ি (Satgram Zamindar Bari) অবস্থিত। এই জমিদার বাড়ী থেকেই জমিদাররা অত্র এলাকার শাসন কাজ পরিচালনা করতেন। সাতগ্রামের জমিদারেরা খুবই অত্যাচারী ছিলেন। তারা প্রজাদের খাজনার বিনিময়ে যে জমি বরাদ্দ দিতেন সেগুলোর খাজনা পরিশোধ না করতে পারলে প্রজাদের উপর নির্মম অত্যাচার করা হত। আর তাই অত্যাচারী জমিদারের নানা কাহিনী জড়িয়ে আছে সাতগ্রাম জমিদার বাড়ির প্রতিটি গাঁথুনিতে।

অসংখ্য সবুজ গাছ-গাছালীতে ঘেরা দৃষ্টিনন্দন এই জমিদার বাড়ির ভিতরে ঘাটসহ একটি পুকুর ও নান্দ্যনিক ফুলের বাগান রয়েছে। বর্তমানে প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে ঘেরা এই জমিদার বাড়িটি কালের সাক্ষী হিসেবে দাঁড়িয়ে আছে।

কিভাবে যাবেন

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের কাছে পুরিন্দা বাসস্ট্যান্ড নেমে রিকশায় চড়ে বা পায়ে হেঁটে সাতগ্রাম জমিদার বাড়ি পৌঁছানো যায়।

কোথায় থাকবেন

ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলার দর্শনীয় স্থানগুলো দেখে সন্ধ্যার মধ্যে ফিরে আসা সম্ভব। আর রাত্রিযাপনের প্রয়োজনে নারায়ণগঞ্জ শহরে অবস্থিত হোটেল মেহরান, হোটেল সোনালি, হোটেল নারায়ণগঞ্জ, হোটেল সুগন্ধা, হোটেল সুরমা, সায়রা গার্ডেন রিসোর্ট ও হোটেল রুপায়নে যোগাযোগ করতে পারেন।

কোথায় খাবেন

পুরিন্দা রোডের কাছে খাবারের বেশ কয়েকটি খাবার হোটেল আছে। নারায়নগঞ্জ শহরে মনির রেস্তোরা, নিরিবিলি রেস্টুরেন্ট, শাহী রেস্টুরেন্ট, নিউ ঘরোয়া, খাবার ঘর সহ বিভিন্ন মানের রেস্টুরেন্ট রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলার দর্শনীয় স্থান

নারায়ণগঞ্জ জেলার অন্যান্য দর্শনীয় স্থানের মধ্যে পানাম নগর, লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর, জিন্দা পার্ক, মুড়াপাড়া জমিদার বাড়ি, মায়াদ্বীপ, মেরি এন্ডারসন, সোনাকান্দা দূর্গ, বাংলার তাজমহল ও গোয়ালদি মসজিদ উল্লেখযোগ্য।

ফিচার ইমেজ: আফসার নিজাম

ম্যাপে সাতগ্রাম জমিদার বাড়ি

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।