যান্ত্রিক জীবনের জটিলতা থেকে একটু হাফছেড়ে নিঃশ্বাস নিতে ঢাকার অদূরে অবস্থিত শান্ত ও সুন্দর পরিবেশের নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট (Nokkhottrobari Resort) থেকে ঘুরে আসতে পারেন। নাট্য অভিনেতা, পরিচালক, স্থপতি তৌকির আহমেদ এবং অভিনেত্রী বিপাশা হায়াত বানিজ্যিক উদ্দেশ্যে গাজীপুর (Gazipur) জেলার রাজেন্দ্রপুরে দৃষ্টিনন্দন নক্ষত্র বাড়ি রিসোর্ট প্রতিষ্ঠা করেন।

প্রায় ২৫ বিঘা জমির উপর নিমির্ত এই রিসোর্টে রয়েছে দিঘী, কৃত্রিম ঝর্ণা, কনফারেন্স হল, সুইমিং পুল, রেস্টুরেন্ট, একটি আবাসিক ভবন বা বিল্ডিং কটেজ এবং কাঠ, বাঁশ ও ছনের তৈরী শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ১১ টি কটেজ। এখানে সকাল, দুপুরের ও রাতের খাবারের আয়োজন রয়েছে। নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্টে আগত অথিতিদের প্রত্যেক পরিবারের তিন জন ফ্রি সুইমিং পুল ব্যবহারের সুযোগ পান আর বাকিদের এক্সট্রা চার্জের বিনিময়ে পুল ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে। পূর্ণিমা দেখা, ব্যাঙ ও ঝিঁঝিঁ পোকার ডাক শুনা কিংবা জোনাকির আলোয় প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে যেতে আপনাকে নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্টে আসতে হবে।

আছে শুটিং স্পট, লাইব্রেরী, মুভি থিয়েটার, বাচ্চাদের খেলার জায়গা, নৌকায় ঘুরে বেড়ানো, মাছ ধরার ব্যবস্থা, করতে পারবেন পুল সাইড পার্টি, মিউজিক্যাল আয়োজন, বারবিকিউ এর পার্টি। রিসোর্ট থেকে প্রায়ই আয়োজন করা হয় মিউজিক্যাল নাইটের। বলতে গেলে আপনার ছুটির অবসর কাটানোর জন্যে সকল ধরণের আনন্দ আয়োজন নিয়েই নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট।

নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট ভাড়া

নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্টে আছে তিন ধরণের আবাসন ব্যবস্থা। হোটেল কমপ্লেক্স, ওয়াটার বাংলো ও ফ্যামিলি বাংলো।

হোটেল কমপ্লেক্স: কাপল রেগুলার ৬৩২৫টাকা/নাইট, ডিলাক্স কাপল ৮২২২টাকা/নাইট, টুইন রেগুলার ৬৯৫৭টাকা/নাইট।

ফ্যামিলি বাংলো: দুই বেড রুম, বাচ্চাদের ১টি রুম, লেক ভিউ ও ৫জন থাকার জন্যে ভাড়া ২৭৮৩০টাকা/নাইট।

ওয়াটার বাংলো: ডিলাক্স কটেজ ১০,৭৫২টাকা/নাইট, প্রিমিয়াম সুইট ২২,৭৭০টাকা/নাইট, ফ্যামিলি সুইট ২০,২৪০টাকা/নাইট।

ডে আউট প্যাকেজ : নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্টে ডে আউট প্যাকেজের ব্যবস্থা আছে। সর্বনিম্ন ১০ জনের গ্রুপ হতে হবে। সকালের নাস্তা, দুপুরের খাবার, বিকেলের নাস্তা, বোটিং, সুইমিং পুল ব্যবহারের সুযোগ ও ফ্রেশ হবার জন্যে ১টি রুম বরাদ্ধ সহ এই প্যাকেজে জনপ্রতি খরচ হবে ২০০০-২৫০০ টাকা। শিশুদের (১-৮ বছর বয়স) ক্ষেত্রে ৫০% ডিসকাউন্ট আছে এই প্যাকেজে।

সাধারণ দর্শনার্থীদের নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্টে প্রবেশ মূল্য ৫০০ টাকা। এছাড়া বিশাল কনফারেন্স হলের জন্যে প্রতি শিফট ভাড়া ৩০,০০০টাকা।

খাওয়ার ব্যবস্থা

রিসোর্টের রয়েছে নিজস্ব খাবারের আয়োজন। সকাল, দুপুর ও রাতে সব রকমের খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে।

কিভাবে যাবেন নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট

নিজস্ব পরিবহন কিংবা বাসে করে সহজেই নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্টে যেতে পারবেন। ঢাকার মহাখালী, বিমানবন্দর বাস স্টপ থেকে ময়মনসিংহ রোড ধরে রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তা হয়ে রাজেন্দ্রপুর ক্যান্টনমেন্ট গমনকারী বাসে রাজাবাড়ী বাজার নামক স্থানে নামতে হবে। রাজাবাড়ী বাজার থেকে ডান দিকে মোড় নিয়ে দেড় কিলোমিটার এগুলেই চিনাশুখানিয়া গ্রামের বাঙালপাড়া এলাকায় নির্মিত নক্ষত্র বাড়ি রিসোর্টে পৌঁছে যাবেন।

নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্টে যোগাযোগ

অনলাইন বুকিং : ক্লিক করুন

House # 268 (2nd Floor), Road # 19,
New DOHS, Mohakhali. Dhaka # 1206
ফোন নাম্বার : 88+ 02-9835173, 01772-224281, 01772-224282, 01977-356165, 01771-799410
ইমেইল : resort@nokkhottrobari.com
ওয়েবসাইট : nokkhottrobari.com

গাজীপুরের রিসোর্ট

ঢাকার কাছে হওয়ায় ও গাজীপুরের সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশের কারণে এইখানে গড়ে উঠেছে আরও অনেক রিসোর্ট। গাজীপুরের যত রিসোর্ট আছে তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য গুলো হলো ছুটি রিসোর্ট, জল ও জঙ্গলের কাব্য, সোহাগ পল্লী, রাঙ্গামাটি ও পুবাইল রিসোর্ট।

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।