নড়াইল জেলার লোহাগড়া থানার রামপুরে অবস্থিত নিরিবিলি পিকনিক স্পট (Niribili Picnic Spot) দক্ষিনবঙ্গের একটি অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র। ১৯৯১ সালে নিরিবিলি পিকনিক স্পট উদ্ভোধন করা হয়। প্রায় ১৪ একর জায়গা জুড়ে স্থাপিত এই বনভোজন কেন্দ্রে দর্শনার্থীদের জন্য রয়েছে শিশু পার্ক, মিনি চিড়িয়াখানা, এস এম সুলতানের শিল্পকর্ম, দোলনা, রোপওয়ে, মিনি ট্রেন এবং ওয়াটার বোট।

মিনি চিড়িয়াখানায় স্থান পেয়েছে কুমির, হরিণ, ভাল্লুক, পেলিকন পাখি, অজগরসহ নানা প্রজাতির প্রাণী। এছাড়া রয়েছে ৭০ ফুট লম্বা একটি তিমি মাছের কঙ্কাল। নিরিবিলি পিকনিক স্পটের শোভাবর্ধনের জন্য স্থাপন করা হয়েছে কাজী নজরুল ইসলাম, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরসহ বিভিন্ন বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ এবং প্রাণীর ভাস্কর্য।

নিরিবিলি পিকনিক স্পটটি প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকে। আরো বিস্তারিত তথ্য জানতে যোগাযোগ করতে পারেন- 01711-074085

কিভাবে যাবেন:

বাংলাদেশের যেকোনো স্থান হতে নড়াইল জেলা সদরে এসে লক্ষীপাশা বাসস্ট্যান্ডের দিকে কিছুটা এগিয়ে গেলে নিরিবিলি পিকনিক স্পট পৌঁছে যাবেন। আর রাজধানী ঢাকা থেকে মাওয়া এবং কালনা ফেরীঘাট হয়ে লোহাগড়া পেরিয়ে এক কিলোমিটার সামনে এগুলেই নিরিবিলি পিকনিক স্পটের প্রবেশ পথ দেখতে পাবেন।

ঢাকার গাবতলী থেকে নড়াইলগামী বাসের মধ্যে হানিফ এন্টারপ্রাইজ, ঈগল পরিবহন, সাদ সুপার ডিলাক্স পরিবহন উল্লেখ্যযোগ্য। এসব বাসে করে নড়াইল যেতে জনপ্রতি ৩৫০ থেকে ৪৫০ টাকা ভাড়া লাগে।

কোথায় থাকবেন:

নিরিবিলি পিকনিক স্পটে আগত অতিথিদের রাত্রি যাপনের জন্য আবাসিক ব্যবস্থা চালু রয়েছে। অতিথিরা নির্দিষ্ট অর্থ প্রদান করে এখানে থাকতে পারেন। এছাড়া নড়াইল সদরে অবস্থিত আবাসিক হোটেলগুলোর কোন একটিতে রাত্রিযাপন করতে পারেন। নড়াইলে রাতে থাকতে চাইলে মডার্ন আবাসিক হোটেল (01917-835028), সম্রাট আবাসিক হোটেল এবং সার্কিট হাউজ (0481-62268) এ যোগাযোগ করতে পারেন।

ম্যাপে নিরিবিলি পিকনিক স্পট

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।