রাজধানী ঢাকার কাছে সরিষা ক্ষেতের সৌন্দর্যে বুঁদ হতে চাইলে ঘুরে আসুন মানিকগঞ্জ জেলার ঝিটকার (Jhitka) দিগন্ত বিস্তৃত সরিষা ক্ষেত থেকে। খেজুর গাছের সারি, হলুদ ফুলের মুগ্ধতা আবার কোথাও মধুচাষীদের মধু সংগ্রহের ধুম যেন প্রকৃতি নিরব উৎসবের আহ্বান জানাতে ব্যকুল। শীতের কুয়াশায় মোড়া হলুদ সরিষার ক্ষেত যেন রূপকথার রাজ্য থেকে তুলে আনা কোন জীবন্ত ছবি। আর খুব সকালে ঝিটকায় আসলে সরিষা ফুলের সৌন্দর্য উপভোগের সাথে সাথে তাজা খেজুরের রস চেখে দেখার সুযোগ মিলবে অনায়াসেই।

সরিষা ফুল দেখতে যাবেন

ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারি এই দুই মাস অধিক পরিমানে সরিষা ফুল দেখা যায়। আর সরিষা ফুল দেখতে যেতে হলে সকাল অথবা বিকাল বেলা সরিষা ক্ষেতে যান।

সরিষা ক্ষেত কিভাবে যাবেন

মানিকগঞ্জের ঝিটকার সরিষা ক্ষেত দেখতে যেতে চাইলে প্রথমে মানিকগঞ্জ জেলা সদরে আসতে হবে। ঢাকার গুলিস্তান হতে শুভযাত্রা ও বিআরটিসি বাস মানিকগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। আর পুরান ঢাকার বাবু বাজার ও গাবতলি থেকে যানযাবিল, শুকতারা, যাত্রীসেবা, পদ্মা লাইন, ভিলেজ লাইন ও জনসেবা পরিবহনের বাসে মানিকগঞ্জ যেতে পারবেন। ঢাকা হতে মানিকগঞ্জ যাওয়ার বাস ভাড়া ৫০ থেকে ১০০ টাকা। মানিকগঞ্জ সদর হতে ঝিটকা যাওয়ার লোকাল বাস ও সিএনজি চলাচল করে।

কোথায় থাকবেন

ঢাকা থেকে অনায়াসে দিনে গিয়ে দিনেই মানিকগঞ্জ ঘুরে ফিরে আসা যায়। প্রয়োজনে রাত্রিযাপন করতে হলে নবিন সিনেমা হল ও টাউন হলের কাছে বেশকিছু আবাসিক হোটেল রয়েছে।

প্রয়োজনীয় পরামর্শ

খেজুরের রস খেতে চাইলে সকাল সকাল ঝিটকা হতে চলে যান শামিম হাজারির বাড়ির কাছে। সময়মত পৌঁছাতে পারলে অনেক গাছিকে খেজুরের রসে কলস সংগ্রহ করতে দেখবেন। আর সবচেয়ে ভাল খেজুরের গুড় কিনতে চাইলে ঝিটকা অথবা মানিকগঞ্জে পরিচিত কারো সাহায্য নিন।

সরিষা ক্ষেতে ঘুরতে গেলে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যেন ক্ষেতের কোন ক্ষতি না হয়। কৃষকদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল এই ক্ষেত গুলো। তাই কৃষকের ক্ষতি হয় এমন কিছু করা থেকে নিজে বিরত থাকবেন এবং অন্যদেরকেও সচেতন করবেন।

ম্যাপে ঝিটকার সরিষা ক্ষেত

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।