করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে আগামী কিছুদিন কোথাও ভ্রমণ থেকে বিরত থাকুন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন ও সচেতন থাকুন। করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সকল তথ্য জানতে এখানে ক্লিক করুন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার শাহাবাজপুর ইউনিয়নে ঐতিহ্যবাহী মুঘল তোহাখানা (Mughal Tahakhana) বা তোহাখানা কমপ্লেক্সের অবস্থান। চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে তোহাখানার দূরত্ব প্রায় ৩৫ কিলোমিটার। ফার্সি শব্দ তোহাখানার অর্থ ঠান্ডা ভবন বা প্রাসাদ। মুঘল সম্রাট শাহজাহানের পু্ত্র সুলতান শাহ সুজা তাঁর মুর্শিদ সৈয়দ নেয়ামতউল্লাহর শীতকালীন বসবাসের সুবিধার্থে ফিরোজপুরে তাপনিয়ন্ত্রিত ৩ তলা বিশিষ্ট এই প্রাসাদটি নির্মাণ করেন। বিভিন্ন ঐতিহাসিক সূত্র মতে, ১৬৩৯-১৬৫৮ খ্রিষ্টাব্দে এই তোহাখানাটি নির্মিত হয়।

শাহ সুজা তোহাখানায় অবকাশ যাপনের জন্য আসলে ইমারতের মাঝামাঝি একটি সুপ্রশস্ত কক্ষে অবস্থান করতেন। তোহাখানা কমপ্লেক্সের ভেতরে বেশকিছু নাম না জানা সমাধি রয়েছে। এগুলো হযরত শাহ সৈয়দ নেয়ামতউল্লাহর খাদেম বা সহচর বলে মনে করা হয়। তোহাখানা কমপ্লেক্সের মধ্যে আরো আছে তিন গম্বুজবিশিষ্ট মসজিদ, কুপ এবং এক গম্বুজ বিশিষ্ট সমাধি।

কিভাবে যাবেন

রাজধানী ঢাকা থেকে সরাসরি শিবগঞ্জগামী বাস রয়েছে। হানিফ, ন্যাশনাল ট্রাভেলস, দেশ পরিবহন কিংবা শ্যামলীর বাসে চড়ে শিবগঞ্জ যেতে প্রায় ৮ ঘন্টা সময় লাগে। বাস ভাড়া জনপ্রতি ৭০০ থেকে ১০০০ টাকা।

এছাড়া ঢাকার কল্যানপুর কিংবা গাবতলী থেকে দেশ ট্রাভেলস, ন্যশনাল ট্রাভেলস, গ্রামীন ট্রাভেলস, তুহিন এলিটের এসি ও নন-এসি বাসে চাঁপাইনবাবগঞ্জ এসে মাহেন্দ্র বা সিএনজি ভাড়া নিয়ে তোহাখানায় পৌঁছাতে পারবেন।

কোথায় থাকবেন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শহরে সাধারণ মানের আবাসিক হোটেলের মধ্যে হোটেল রোজ, হোটেল আল নাহিদ, হোটেল স্বপ্নপুরী, নবাবগঞ্জ বোডিং এবং হোটেল রংধনু উল্লেখযোগ্য। তবে ভালো কোথাও থাকতে চাইলে রাজশাহী শহরে যেতে হবে। রাজশাহীতে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের মোটেল ছাড়াও হোটেল হক্স ইন, নাইস ইন্টারন্যাশনাল, মুক্তা ইন্টারন্যাশনাল, ডালাস ইন্টারন্যাশনাল শুকরান ইত্যাদি হোটেলে রাত্রিযাপন করতে পারবেন।

ফিচার ইমেজ: রাকিবুল হক

ম্যাপে তোহাখানা

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।