মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়ায় প্রায় ৩০ বিঘা জায়গাজুড়ে মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্ট (Meghna Village Holiday Resort) গড়ে তোলা হয়েছে। প্রবেশ ফটকের শুরুতেই রয়েছে বেশ কয়েকটি প্রাণীর ভাস্কর্য। তারপর প্রবেশ পথ পেরিয়ে ভেতরে ঢুকলেই শান্ত সুন্দর পরিবেশের মুগ্ধতা। মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্টের কুটিরগুলোকে নেপালি ঢঙে তৈরী করা হয়েছে। যারা কর্মব্যস্ততায় গ্রামের সৌরভ মিস করেন তারা ঢাকার কাছে বিনোদন কিংবা অবকাশ যাপনের জন্য মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্ট-এ আসতে পারেন।

মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্টে আগত অতিথিদের জন্য রয়েছে ১০টি এসি/ নন এসি কটেজ, চিকিত্সা সেবা, লন্ড্রি, সুভ্যেনির শপ, নিজস্ব পরিবহণ ব্যবস্থা, বাংলা ও চাইনিজ খাবার, বার বি কিউ, পিকনিক আয়োজন এবং মাছ ধরার ব্যবস্থা। আর খেলাধুলার জন্য রয়েছে দুইটি বিশাল খেলার মাঠ।

রিসোর্টের মিনি চিড়িয়াখানায় আছে বানর, চিত্রা হরিণ, কালিম পাখি, খরগোশ, লজ্জাবতী হনুমান, কোয়েল পাখি, কুমিরসহ বিভিন্ন প্রাণী। এছাড়া রিসোর্টে বিভিন্ন বিনোদন রাইডের মধ্যে আছে পেন্ডুলাম পাইরেট শিপ, মেরিগো রাউন্ড, প্যাডেল বোট, ব্যাটারী কার, নাগরদোলা, সাইকেল চালনা এবং মিকি মাউস বাইক। তবে এই রাইডগুলো উপভোগ করতে ১০ টাকা থেকে ৩০ টাকা হারে ফি প্রদান করতে হয়। আর ২০ আসনের ৩ডি সিনেপ্লেক্সে ঢুকতে খরচ হবে জনপ্রতি ৩০ টাকা।

রিসোর্টের রুম ভাড়া

মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্টে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরণের প্যাকেজ চালু থাকে। তাই বর্তমান প্যাকেজ সম্পর্কে জানতে রিসোর্টের ওয়েবসাইট চেক করুন অথবা অফিসিয়াল মোবাইল নাম্বারেও কল করতে পারে। চলুন জেনে নেই রিসোর্টের বর্তমান রুম ভাড়ার বিস্তারিত।

সুপিরিয়র কাপল রুম – ২ টি (কামিনী ও রজনীগন্ধা):
ডে-লং: ৭০০০ টাকা
ডে-নাইট: ৮০০০ টাকা
নাইট: ৬৫০০ টাকা
এক্সট্রা বেড জনপ্রতি ৫০০

প্রিমিয়ার কাপল সূট – ৪ টি (এসি)
ডে-লং: ৬,৫০০ টাকা
১রাত/১দিন: ৭,৫০০ টাকা
নাইট: ৪,৫০০ টাকা

সুপিরিয়র হানিমুন সুট (কুঞ্জলতা)
ডে-লং: ৮,০০০ টাকা
১রাত/১দিন: ৯,৫০০ টাকা
নাইট: ৬,০০০ টাকা

ডিলাক্স কাপল স্যুট – নন-এসি ২ টি (হাসনাহেনা ও গন্ধরাজ)
ডে-লং ভাড়া: ৪৫০০ টাকা
১রাত/১দিন ভাড়া: ৫০০০ টাকা
নাইট-লং ভাড়া: ৪০০০ টাকা

প্রিমিয়ার ফ্যামিলি রুম
ডে-লং ভাড়া: ৬৫০০ টাকা
১রাত/১দিন ভাড়া: ৭৫০০ টাকা
নাইট-লং ভাড়া: ৪৫০০

ডে-লং রুম ভাড়া নিলে চেক-ইনের সময় সকাল ৯ টা এবং চেক আউটের সময় বিকাল ৫ টা।
১রাত/১দিন ভাড়া নিলে চেক-ইনের সময় সকাল ৯ টা এবং চেক আউটের সময় পরদিন সকাল ৮ টা।
নাইট-লং রুম ভাড়া চেক-ইনের সময় সন্ধ্যা ৬ টা এবং চেক আউটের সময় পরদিন সকাল ৮ টা।

(সকল ভাড়া পরিবর্তনশীল, কতৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যেকোন সময় কম বেশি হতে পারে।)

টিকেট মূল্য

মেঘনা ভিলেজ হলিডে রিসোর্টে প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্যে প্রবেশ মূল্য জনপ্রতি ৫০ টাকা এবং শিশু-কিশোরদের প্রবেশ মূল্য ২০ টাকা। সুইমিং পুলে ২ ঘন্টা সাতার কাটার জন্য এন্ট্রি ফি জনপ্রতি ২৫০ টাকা। মেহলিস ডাইনিং রেস্তোরায় বাংলাদেশী কুজিনে লাঞ্চ প্যাকেজের মূল্য জনপ্রতি ৩৫০ টাকা।
এছাড়া রিসোর্ট এন্ট্রি, পুল এন্ট্রি, আনলিমিটেড সুইমিং এবং বাংলাদেশী কুজিন লাঞ্চের প্যাকেজ মুল্য জনপ্রতি ৫৯৯ টাকা।

প্রবেশ সময় : সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত।

যোগাযোগ

ঢাকা অফিস:
সুইট – ৫১২এ, লেভেল ৫
ইব্রাহিম ম্যানশন, ১১ পুরানা পল্টন, ঢাকা।
ফোন: 02-9570782, 01552-308849, 01552-333563
বুকিং – 01712-203336
অনুসন্ধান – 01718-471961, 01817-104126
ওয়েবসাইট: meghnavillage.com
ফেইসবুক: fb.com/meghvillresort

কিভাবে যাবেন

ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে কাঁচপুর ব্রিজ, সোনারগাঁ হয়ে মেঘনা ব্রিজের ওপারে বালুকান্দি বাসস্ট্যান্ড থেকে বা-দিকের রাস্তা ধরে ১ কিলোমিটার এগিয়ে গেলেই মেঘনা ভিলেজ রিসোর্ট-এর প্রবেশ দ্বার দেখতে পাবেন। চাইলে রিসোর্টের গাড়িতে করেও যেতে পারবেন। তবে সেজন্য ১,৫০০+ টাকা খরচ করতে হবে।

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।