নারায়ণগঞ্জ জেলা থেকে ৩৪ কিলোমিটার দূরে সোনারগাঁ উপজেলার বারদি বাজারের পশ্চিম-উত্তর কোণে শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারীর আশ্রম (Sri Sri Loknath Bramhachari Ashram) বা বারদী লোকনাথ আশ্রম অবস্থিত। ১৭৩০ সালের ৩১ আগস্ট পশ্চিম বঙ্গের ২৪ পরগনা জেলার বারাসাত থানার অন্তর্গত কচুয়া গ্রামে লোকনাথ ব্রহ্মচারী জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পুঁথি বিদ্যা ত্যাগ করে সন্ন্যাস ব্রত গ্রহণ করে হিমালয়ে কঠোর যোগ সাধনা করেন। পরবর্তীতে মানুষের মাঝে জ্ঞান ছড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে তিনি লোকালয়ে বের হয়ে আসেন। বিভিন্ন দেশ ঘুরে ১৮৬৩ সালে সোনারগাঁয়ে পৌঁছে লোকনাথ ব্রহ্মচারী বারদী গ্রামে প্রকৃতির নিবিড় সজীবতায় এই আশ্রম প্রতিষ্ঠা করেন। প্রায় ২২ বছর আরাধনার পর ১৮৯০ সালের ১ জুন মহাপুরুষ লোকনাথ ব্রহ্মচারী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বারদী লোকনাথ আশ্রম জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষের জন্য এক মিলন মেলা হিসেবে পরিচিত।

বারদী লোকনাথ আশ্রমের দক্ষিণে মহাপুরুষ লোকনাথ ব্রহ্মচারী সমাধি, শত বছরের প্রাচীন বিশাল আকৃতির একটি বকুল গাছ এবং কামনা সাগর” ও “জিয়স” নামের দুইটি পুকুর রয়েছে। আশ্রমের ভিতরে আছে লোকনাথ ব্রহ্মচারীর বিশাল তৈলচিত্র। দর্শণার্থীদের রাত্রিযাপনের সুবিধার্থে রয়েছে ৩টি যাত্রীনিবাস।

মহাপুরুষ লোকনাথ ব্রহ্মচারীর প্রয়াণ দিনটিকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে প্রতি বছর উনিশ জ্যৈষ্ঠ তিরোধান উৎসব, ধর্মীয় অনুষ্ঠান ও সপ্তাহ ব্যাপী মেলার আয়োজন করা হয়। সারাদিন ব্যাপী গীতা পাঠ, বাল্যভোগ, লোকনাথের জীবন বৃত্তান্ত পাঠ, রাজভোগ, প্রসাদ বিতরণ, আরতী ও কীর্তন সহ “হরি লুট” নামের একধরনের উচ্ছ্বল অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। এছাড়াও এই আশ্রমের শত বছরের ঐতিহ্যবাহী উৎসবের নাম “রাখের উপবাস”। প্রতিবছর কার্তিকের ১৫ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত প্রতি শনি ও মঙ্গলবার এই ব্রত অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। সেসময় দেশ ও বিদেশ থেকে অসংখ্য ভক্ত ও দর্শনার্থী বারদী লোকনাথ আশ্রমে সমবেত হয়।

কিভাবে যাবেন

ঢাকার গুলিস্থান থেকে দোয়েল, স্বদেশ বা বোরাক বাসে নারায়ণগঞ্জের মোগড়াপাড়ায় নেমে মোগড়াপাড়া চৌরাস্তা থেকে সিএনজি বা অটো রিকশায ভাড়া করে বারদী লোকনাথ আশ্রম পৌঁছাতে পারবেন।

কোথায় থাকবেন

নারায়ণগঞ্জ শহরে হোটেল মেহরান, হোটেল সোনালি, হোটেল নারায়নগঞ্জ, হোটেল মিনা আবাসিক ও হোটেল মজিবরের মতো বেশ কিছু আবসিক হোটেল রয়েছে। এছাড়াও অনুমতি নিয়ে সার্কিট হাউজ ও জেলা পরিষদের ডাক বাংলোয় থাকতে পারবেন।

কোথায় খাবেন

সোনারগাঁও রোডে ইত্যাদি, আবু বকর, সুরিন্দ্র, খাজা, কাশফুল ও নিউ স্টারের মতো অনেকগুলো খাবারের রেস্তোরা আছে।

নারায়ণগঞ্জের দর্শনীয় স্থান

নারায়ণগঞ্জের পানাম নগর, জিন্দা পার্ক, মুড়া পাড়া জমিদার বাড়ী ও বাংলার তাজমহল দর্শনীয় স্থানের মধ্যে অন্যতম।

ফিচার ইমেজ: অমিতাভ হালদার

ম্যাপে বারদী লোকনাথ আশ্রম

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।