রাজশাহী বিভাগের জয়পুরহাট জেলায় অবস্থিত হিন্দা-কসবা শাহী জামে মসজিদ (Hinda – Kasba Shahi Mosque) বাংলাদেশের ইসলামী স্থাপত্য শিল্পের একটি অন্যতম নিদর্শন। জয়পুরহাট জেলা শহর থেকে মাত্র ১৫ কিলোমিটার দূরে ক্ষেতলালের হিন্দা গ্রামে মসজিদটির অবস্থান। কাচ, চিনামাটি এবং মোজাইকের মাধ্যমে মসজিদের দেয়ালে মোগল স্থাপত্য শিল্পের অনুকরনে বিভিন্ন নকশা ফুটিয়ে তোলা হয়েছে, যা আগত দর্শনার্থীদের কাছে মসজিদটিকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলেছে। বাগমারী পীর হিসাবে সুপরিচিত হযরত আবদুল গফুর চিশতি (রঃ) চিরকুমার ছিলেন। তিনি জয়পুরহাট জেলায় বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান তৈরী করে গেছেন। হিন্দা-কসবা শাহী জামে মসজিদ হযরত আবদুল গফুর চিশতি (রঃ)-এর নকশায় খলিফা আবদুল খালেক চিশতির তত্বাবধানে বাংলা ১৩৬৫ সালে নির্মাণ করা হয়।

হিন্দা-কসবা শাহী জামে মসজিদের কক্ষের দৈর্ঘ্য ৪৯.৫০ ফুট এবং প্রস্থ ২২.৫০ ফুট। ইসলামের ৫ টি স্তম্ভের অনুকরণে মসজিদে ৫ টি গম্বুজ তৈরি করা হয়েছে। আর মসজিদের উত্তর দিকে রয়েছে ৪০ ফুট উচ্চতার একটি মিনার। এছাড়া হিন্দা-কসবা শাহী জামে মসজিদের পাশেই ৪ জন সুফি-সাধকের মাজার রয়েছে।

হিন্দা-কসবা শাহী জামে মসজিদ কীভাবে যাবেন

হিন্দা-কসবা শাহী জামে মসজিদ যেতে চাইলে প্রথমে জয়পুরহাট (Joypurhat) শহরে আসতে হবে। গাবতলি, মহাখালী, আব্দুল্লাহপুর, শ্যামলী এবং কল্যাণপুর থেকে শাহ্‌ ফতেহ আলী পরিবহণ, সেইন্টমার্টিন ট্রাভেলস, শ্যামলী পরিবহন এন আর, এস আর ট্রাভেল এবং হানিফ সহ বেশ কয়েকটি পরিবহণের বাস সার্ভিস ঢাকা হতে জয়পুরহাটের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। এসি, নন-এসি এসব বাসের ভাড়া ৪০০ টাকা থেকে ৮০০ টাকা পর্যন্ত। এছাড়া ঢাকার কমলাপুর কিংবা বিমানবন্দর রেলওয়ে ষ্টেশন থেকে নীলসাগর, একতা এবং দ্রুতযান এক্সপ্রেসে জয়পুরহাট যেতে পারবেন।

ঢাকা হতে জয়পুরহাট বাস টার্মিনালে পৌঁছে অন্য বাসে চড়ে ১৫ টাকা ভাড়ায় ক্ষেতলালের ইটাখোলায় এসে সেখান থেকে ১০-১৫ টাকা রিকশা ভাড়ায় হিন্দা-কসবা শাহী জামে মসজিদ যেতে পারবেন।

জয়পুরহাট কোথায় থাকবেন

জয়পুরহাট শহরের থানা রোডে হোটেল সৌরভ ইন্টাঃ, হোটেল জাহান আরা ইন্টাঃ, জসিম রেসিডেন্সিয়াল হোটেল, পৃথিবী হোটেল, হোটেল বৈশাখী রেসিডেন্সিয়াল ইত্যাদি ছাড়াও আরো বিভিন্ন মানের আবাসিক হোটেল রয়েছে।

জয়পুরহাট কোথায় খাবেন

জয়পুরহাটে বিভিন্ন মানে চাইনিজ এবং বাংলা খাবারের রেস্টুরেন্ট রয়েছে। এদের মধ্যে ক্যাফে অরেঞ্জ চাইনিজ রেস্টুরেন্ট, বিসমিল্লা হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট, রুচিটা রেস্টুরেন্ট এন্ড চাইনিজ, মিনা, প্রিন্স রেস্টুরেন্ট ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।