দিয়াবাড়ি (Diabari) রাজধানী ঢাকার উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরে অবস্থিত একটি সুপরিচিত স্থানের নাম। নদীর পরশমাখা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য নিয়ে এক অপার্থিব শুভ্রতায় মনকে ভরিয়ে দিতে দিয়াবাড়ির জুড়ি নেই। আর শরৎকালে রাজধানী ঢাকায় কাশবনের মুগ্ধতায় বুঁদ হতে চাইলে দ্বিধাহীন চিত্তে চলে আসুন এখানে। দৃষ্টিজুড়ে কাশফুলের কোমল শুভ্রতা আর দিগন্তে ঝুলে থাকা শেষ বিকেলের সূর্য্য ভুলিয়ে দেবে নাগরিক জীবনের কর্ম ব্যস্ততার সকল অবসাদ।

বিশাল বটগাছ দিয়াবাড়ির সৌন্দর্যে যোগ করেছে এক ভিন্নমাত্রা। হরহামেশাই দর্শনীয় এই বটবৃক্ষের ছায়ায় নাটকের দৃশ্য চিত্রায়িত হচ্ছে। দুপাশে রাস্তা নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা বটগাছের ছায়াময় এই জায়গাটি এখন ‘দিয়াবাড়ি বটতলা’ নামে পরিচিটি লাভ করেছে। ভাগ্যে থাকলে পছন্দের কোন তারকার অটোগ্রাফ নেয়ার সুযোগও পেয়ে যেতে পারেন এই দিয়াবাড়িতে!

সবুজে মোড়া দিয়াবাড়ির কাছে আছে তুরাগ নদী হতে সৃষ্টি হাওয়া একটি শাখা নদী। বর্তমানে মৃত এই শাখা নদীকে সংস্কার করে লেকের রূপ দেয়া হয়েছে। সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য লেকের পাড় বাধিয়ে একটি নান্দনিক সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। প্রিয়মানুষকে নিয়ে লেকের জলে নৌকায় ভেসে, প্রাণবন্ত আড্ডা-গানে মুখর হয়ে কিংবা জেলেদের মাছ ধরার ব্যস্ততা দেখে দেখে জীবন খাতায় জমিয়ে নিতে পারেন দারুণ কিছু মুহুর্ত।

কিভাবে যাবেন

দিয়াবাড়ি যেতে চাইলে ঢাকার যেকোন প্রান্ত হতে উত্তরা রুটে চলাচলকারী বাসে হাউজ বিল্ডিং চলে আসুন। হাউজ বিল্ডিংয়ের অবস্থিত নর্থ টাওয়ার বা মাসকট প্লাজার সামনে দিয়াবাড়ি যাওয়ার রিক্সা ও লেগুনা পাওয়া যায়। লেগুনায় দিয়ে সরাসরি দিয়াবাড়ি বটতলায় আসা যায়।

ফিচার ইমেজ: রেজা আনসারী

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।