রাজধানী ঢাকার শ্যামপুরে বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে ২.৩ একর জায়গা জুড়ে ২০১২ সালের অক্টোবর মাসে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) বুড়িগঙ্গা ইকো পার্ক (Buriganga Eco-Park) নির্মাণ করেন। রাজধানী ঢাকায় পরিবার পরিজনদের নিয়ে প্রকৃতির সাথে সময় কাটাতে বুড়িগঙ্গা ইকো পার্ক হতে পারে একটি আদর্শ জায়গা। বুড়িগঙ্গা ইকো পার্ক নামের পাশাপাশি এটি ‘শ্যামপুর ইকো পার্ক’ এবং ‘বিআইডব্লিউটিএ ইকো পার্ক’ নামেও পরিচিত।

বুড়িগঙ্গা ইকো পার্কে আছে মেরী গো রাউন্ড, ক্যাপসুল, বুল ফাইট, স্ট্রাইকিং কার, ৯ ডি সিনেমা সহ ২৪টিরও অধিক আকর্ষণীয় রাইড, ফুড কোর্ট, বসার স্থান, নৌঘাট এবং নদীর তীরের চমৎকার দৃশ্য উপভোগের জন্য হাঁটার রাস্তা।

প্রবেশ মূল্য ও সময়সূচী : বুড়িগঙ্গা ইকো পার্কে প্রবেশ টিকেটের মূল্য জনপ্রতি ৩০ টাকা। আর রাইড উপভোগ করতে চাইলে রাইড ভেদে ৩০ থেকে ১০০ টাকা খরচ করতে হবে। পার্কটি প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকে। তবে ভোর বেলা মর্নিং ওয়াক কিংবা খেলাধুলার উদ্দেশ্যে পার্কে আগমনকারীদের কোন প্রবেশ ফি দিতে হয় না।

কিভাবে যাবেন

গেন্ডারিয়া থানা থেকে এই স্ট্রিট পার্কটি মাত্র ৭০০ মিটার দূরে অবস্থিত। ঢাকার যেকোন স্থান হতে নিজস্ব গাড়ি বা বাসে যাত্রাবাড়ি এসে শ্যামপুরের বুড়িগঙ্গা ইকো পার্ক যাওয়া যায়।

ফিচার ইমেজ : হাসান ইসমাঈল

ম্যাপে বুড়িগঙ্গা ইকো পার্ক

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।