করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে আগামী কিছুদিন কোথাও ভ্রমণ থেকে বিরত থাকুন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন ও সচেতন থাকুন। করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সকল তথ্য জানতে এখানে ক্লিক করুন

খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলায় ভূতিয়ার পদ্মবিল (Bhutia Padma Beel) অবস্থিত। প্রকৃতিপ্রেমীদের জন্য এই পদ্মবিল যেন এক স্বর্গ রাজ্য। হাজার হাজার পদ্ম ফোটে থাকে সমগ্র বিল জুড়ে। মোহনীয় এ দৃশ্য কর্মব্যস্ত নাগরিক জীবনের ক্লান্তি ঘুচাতে কাজ করে ম্যাজিকের মত। ভূতিয়ার পদ্মবিল আবহমান গ্রাম বাংলার অপরূপ প্রকৃতির প্রতিচ্ছবি, যা আগের মত আর সবখানে দেখা যায় না। সকাল ৬টা থেকে ৬টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পদ্ম ফুল দেখতে সবচেয়ে উপযুক্ত সময়। কারণ বেলা যতই বাড়তে থাকে পদ্মও ফুলের ততই পাপড়ি বুজে যেতে থাকে। সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাস ভূতিয়ার পদ্মবিল ভ্রমণের সবচেয়ে আদর্শ সময়।

কিভাবে যাবেন

ভূতিয়ার পদ্মবিল দেখতে চাইলে প্রথমে খুলনা জেলা শহরে আসতে হবে। খুলনা শহর থেকে বাস বা সিএনজি চড়ে জেলখানা ঘাট হয়ে যেতে হবে প্রায় ১৮ কিলোমিটার দূরে তেরখাদা বাজার নামক স্থানে। তেরখাদা বাজারে স্থানীয় যে কাউকে পদ্মবিলের কথা বললেই জায়গাটির সন্ধান পেয়ে যাবেন। তেরখাদা বাজারে পদ্মবিলে ঘুরে বেড়ানোর জন্য ছোট ডিঙ্গি নৌকা ভাড়া পাওয়া যায়। নৌকায় চড়তে চাইলে দরদাম করে নিন।

কোথায় থাকবেন

খুলনা শহরের বেসরকারি আবাসনের মধ্যে টাইগার গার্ডেন ইন্টারন্যাশনাল, হোটেল ক্যাসেল সালাম, ওয়েস্টার্ন ইন, হোটেল হলিডে ইন্টারন্যাশনাল, হোটেল মিলেনিয়াম ও সিটি ইন লিমিটেড উল্লেখযোগ্য।

কোথায় খাবেন

খুলনা শহরের শিববাড়ী মোড়ে বেশকিছু ভালো রেস্টুরেন্ট আছে। খুলনা শহরে খাবারের মধ্যে সন্দেশ, ১ টাকার পুরি, কাচ্চি বিরিয়ানি ও গলদা চিংড়ি প্রসিদ্ধ।

ফিচার ইমেজ: রায়হান ওমর

ম্যাপে ভূতিয়ার পদ্মবিল

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।