ভেতরবন্দ জমিদার বাড়ি (Bhetarbandh Zamindar Bari) কুড়িগ্রাম সদর থেকে মাত্র ১৬ কিলোমিটার দূরে নাগেশ্বরী উপজেলায় অবস্থিত। ইংরেজ শাসনামলে রাজশাহী ছিল ভেতরবন্দ পরগণার সদর দপ্তর। চিরস্থায়ী বন্দোবস্তের পর নাগেশ্বরী উপজেলার ভেতরবন্দ গ্রামে এই পরগণার সদর দপ্তর স্থানান্তরিত হয়। কাঠ দিয়ে নির্মিত ভেতরবন্দ জমিদার বাড়ির প্রায় অর্ধেক অংশ কালের গর্ভে হারিয়ে গেছে, বর্তমানে টিকে থাকা জমিদার বাড়ির বাকি অর্ধেকাংশে ভেতরবন্দ ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয় হিসাবে পরিচালনা করা হচ্ছে।

কিভাবে যাবেন

রাজধানী ঢাকার শ্যামলি অথবা কল্যাণপুর থেকে এস-বি, নাবিল, শ্যামলী, হানিফ এবং কুড়িগ্রাম পরিবহণের (01924-469437, 01914-856826) বাস সরাসরি কুড়িগ্রামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। কুড়িগ্রাম থেকে সিএনজি কিংবা ইজিবাইকে চড়ে নাগেশ্বরী উপজেলায় ভেতরবন্দ জমিদার বাড়ি যাওয়া যায়।

কোথায় থাকবেন

কুড়িগ্রামের ঘোষপাড়া এবং কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের কাছে বিভিন্ন মানের কয়েকটি হোটেল রয়েছে। এদের মধ্যে হোটেল আকাশ, মেসার্স হোটেল ডিকে (01712-123171), মেসার্স হোটেল স্মৃতি (01719-028411), মেসার্স হোটেল মেহেদী (01711-348910), মেসার্স হোটেল আরজি, মেসার্স হোটেল নিবেদিকা (01717-058295), মেসার্স হোটেল অর্ণব প্যালেস (01740-571006), মেসার্স হোটেল বসুন্ধরা (0581-61507), মেসার্স মিতা রেস্ট হাউস ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

কোথায় খাবেন

কুড়িগ্রামের মাছের খ্যাতি আছে দুনিয়াজোড়া তাই এখানে এসে বিভিন্ন রকম মাছ টেস্ট করে দেখতে পারেন। এছাড়া খাবারের জন্য কুড়িগ্রামে সাধারণ মানের খাবার হোটেল রয়েছে।

কাছাকাছি ভ্রমণের জায়গা

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।