পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলা অবস্থিত ভান্ডারিয়া শিশু পার্ক (Bhandaria Shishu Park) একটি পারিবারিক বিনোদন কেন্দ্র। সব বয়সী দর্শনার্থীদের বিনোদনের উদ্দেশ্যে নির্মিত ভান্ডারিয়া শিশু পার্কে আছে বিভিন্ন ধরনের আকর্ষণীয় রাইড এবং বিভিন্ন প্রাণীর প্রতিকৃতি।

প্রায় ৩.৩৮ একর আয়তনের ভান্ডারিয়া শিশু পার্কে রয়েছে নানা প্রজাতির অসংখ্য গাছপালা ও ফুলের বাগান। সবুজে ঢাকা এই পার্কটি অতি অল্প সময়ে পিরোজপুর জেলার একটি অত্যাধুনিক শিশু পার্ক হিসাবে সর্বত্র পরিচিতি পেয়েছে।

কিভাবে যাবেন

ঢাকা থেকে সড়ক এবং নৌপথে সহজেই পিরোজপুর (Pirojpur) যাওয়া যায়। ঢাকার গাবতলী এবং সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে বিভিন্ন পরিবহনের বাস নিয়মিতভাবে সকাল ও রাতে পিরোজপুরের পথে যাত্রা করে। গাবতলী থেকে সাকুরা পরিবহন (02-8021184) ও ঈগল পরিবহন (01712-543907) এর বাস প্রতিদিন সকাল এবং রাতে পিরোজপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। আর সায়েদাবাদ বাসস্টাণ্ড থেকে দোলা পরিবহন (01739-612299), হামিম পরিবহন এবং বনফুল পরিবহনসহ বেশকিছু বাস সার্ভিসের গাড়ি ঢাকা হতে পিরোজপুরের পথে চলাচল করে।

নদী পথেও পিরোজপুর যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। রাজধানী ঢাকার সদরঘাট নদীবন্দর থেকে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭ টায় লঞ্চ রাজদূত/পারাবত এবং রাত ৯ টায় স্টীমার অস্ট্রি্চ সদর ঘাট থেকে পিরোজপুরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে।

ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় থেকে ১৫ থেকে ২০ টাকা রিক্সা ভাড়ায় মাত্র ১.৫ কিলোমিটার দূরে ভান্ডারিয়া থানার সামনে অবস্থিত শিশু পার্কে যেতে পারবেন।

কোথায় থাকবেন

পিরোজপুর জেলায় রাত্রি যাপনের জন্য মোটামুটি মানের বেশকিছু আবাসিক হোটেল রয়েছে। এদের মধ্যে হোটেল রিল্যাক্স (0461-62807), হোটেল রজনী (01712-562241), হোটেল অবকাশ (0461-62333), হোটেল ডালাস (0461-62855), হোটেল আল গালিভ (মিয়ারহাট বন্দর, নেছারাবাদ), হোটেল সিনথিয়া (0461-63262), হোটেল আল মদীনা (01712-519009), হোটেল শাহ নেওয়াজ (ইন্দেরহাট বন্দর) উল্লেখযোগ্য।

ফিচার ইমেজ : আল মুকিত

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।