১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন ঘটনা প্রবাহের আলোকচিত্র, প্রিয়জনকে লেখা চিঠি, ভাষা শহীদদের ছবি সহ নানান ঐতিহাসিক জিনিস নিয়ে ২০১২ সালের ২৫ মার্চ ভাষা শহীদ আবুল বরকত স্মৃতি জাদুঘর ও সংগ্রহশালা চালু (Language Martyr Abul Barakat Memory Museum and Library) করা হয়। সবুজ ঘাসে ঢাকা শহীদ বরকত জাদুঘর (Shaheed Barkat Museum) প্রাঙ্গণে শহীদ আবুল বরকতের একটি প্রতিকৃতি স্থাপন করা হয়েছে।

দ্বিতল জাদুঘর ভবনের নিচতলায় শহীদ বরকতের ব্যবহৃত ঘড়ি, চিঠি, ছবি, কাপ-পিরিচ, ভাষা আন্দোলনের ডকুমেন্টারি, একুশে পদক প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়েছে। আর দ্বিতীয় তলায় রয়েছে একটি পাঠাগার। পাঠাগারে ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত পায় পাঁচশতাধিক বই সংগৃহীত আছে। আগত দর্শনার্থীদের বিভিন্ন জানা অজানা বিষয়ের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে শহীদ বরকত স্মৃতি জাদুঘরটিতে গাইডের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এছাড়া বিশেষ দিনে এখানে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনীর আয়োজনের সুযোগ রয়েছে।

রবি থেকে বৃহস্পতি এই পাঁচদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত শহীদ বরকত স্মৃতি জাদুঘর সকল দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকে। আর প্রতি শুক্র ও শনিবার জাদুঘর বন্ধ থাকে।

কিভাবে যাবেন

শাহবাগ, গুলিস্থান এবং নিউমার্কেট থেকে রিক্সা অথবা সিএনজি নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের পশ্চিম পাশে অবস্থিত শহীদ বরকত স্মৃতি জাদুঘর যাওয়া যায়।

কোথায় থাকবেন

রাজধানী ঢাকার প্রায় প্রতিটি এলাকাতেই কম বেশি আবাসিক হোটেল রয়েছে। এখানে ৫ তারকা মানের হোটেল থেকে শুরু করে সাধারণ মানের হোটেলও পাবেন। ৫ তারকা হোটের মধ্যে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁ, হোটেল লা মেরিডিয়েন, র‍্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। এছাড়া বঙ্গবন্ধু এভিনিউ, ফকিরাপুল, পল্টন, গুলিস্তান এবং পুরান ঢাকাতে কম খরচে থাকার অসংখ্য আবাসিক হোটেল রয়েছে।

ফিচার ইমেজ: GENERAL VIEWS

ম্যাপে শহীদ বরকত স্মৃতি জাদুঘর

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।