করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে আগামী কিছুদিন কোথাও ভ্রমণ থেকে বিরত থাকুন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন ও সচেতন থাকুন। করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সকল তথ্য জানতে এখানে ক্লিক করুন

ভুটান ভ্রমণ করার জন্য পর্যটকদের কাছ থেকে ট্রাভেল ট্যাক্স হিসেবে ভুটান সরকার ৬৫ ডলার এবং ভিসা ফি হিসেবে ৪০ ডলার নেওয়ার পরিকল্পনা থেকে সরে আসলেও গত ০৩ ফেব্রুয়ারি সোমবার ভুটানের নিম্নকক্ষ নতুন একটি আইন পাস করে। নতুন এই আইনে বলা হয়েছে, ২০২০ সালের জুলাই মাস থেকে বাংলাদেশ, ভারত এবং মালদ্বীপের পর্যটকদের ভুটান ভ্রমণে প্রতিদিন এক হাজার ২০০ রুপি অর্থাৎ প্রায় এক হাজার ৪০০ টাকা ফি প্রদান করতে হবে। ভুটান সরকার জানিয়েছে দেশের টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

কয়েক মাস আগেও ভুটান সরকারের বাংলাদেশ, ভারত এবং মালদ্বীপের পর্যটকদের কাঁদে বড় অঙ্কের ফি রেখে প্রস্তাবিত খসড়া আইনকে দেশটির নিম্নকক্ষ বাতিল করে দেয়। তখন পর্যটকদের কাছ থেকে প্রতিদিন ৬৫ ডলার নেওয়ার প্রস্তাব থাকলেও এবার ১৭ ডলার ফি রেখে আইন পাস করা হয়েছে। যদিও এতদিন কোন ফি ছাড়াই ফ্রিতে দক্ষিণ এশিয়ার এই তিনটি দেশের পর্যটকগণ ভ্রমণ করতে পারতেন।

ভুটান সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে ২০১৮ সালের দুই লাখ ৭৪ হাজার পর্যটকের মধ্যে শুধুমাত্র ভারতের পর্যটক সংখ্যা ছিল প্রায় এক লাখ ৮০ হাজার। ফলে লাগামহীন পর্যটক বৃদ্ধিতে রাজ্যের পরিবেশ ও বাস্তুসংস্থানের ওপর প্রভাব নিয়ে ভুটান সরকারের উদ্বিগ্নতার পরিপেক্ষিতে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা।

উল্লেখ, অন্যান্য দেশের পর্যটকদের ভুটান ভ্রমণে প্রতিদিন ২৫০ মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় ২১ হাজার ২৫০ টাকা প্রদান করতে হলেও বাংলাদেশ, ভারত ও মালদ্বীপের নাগরিকদের এতদিন কোন ফি দিতে হতো না।

ভুটান সরকার কিছুদিন আগে পর্যটকদের কাছ থেকে ট্রাভেল ট্যাক্স নেওয়ার পরিকল্পনা বাতিল করে ভুটানের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানের প্রবেশ ফি বৃদ্ধি করে। অর্থাৎ যেসব স্থানের প্রবেশ ফি ৩০০ রুপি ছিল সেগুলো ৫০০ রুপি এবং ৫০০ রুপির প্রবেশ ফি বৃদ্ধি করে ১০০০ রুপি করা হয়ে। তবে শিক্ষার্থীদের জন্য আইডি কার্ড প্রদর্শনপূর্বক অর্ধেক প্রবেশ ফি প্রদানের সুযোগ রাখা হয়েছে।

গতবছর (২০১৯ সালে) বাংলাদেশ, ভারত ও মালদ্বীপ এই তিন দেশের জন্য অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা তুলে নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে ভুটান সরকার। ভুটানের ট্যুরিজম কাউন্সিলের খসড়া পর্যটন নীতি ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে চালু হওয়ার কথা ছিল।

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।