মেরিনা বে স্যান্ডস (Marina Bay Sands) বা সংক্ষেপে এমবিএস (MBS) হচ্ছে সিঙ্গাপুরের একটি অত্যাধুনিক রিসোর্ট কমপ্লেক্স। ২০১০ সালে নির্মিত ৫৭ তলা বিশিষ্ট মেরিনা বে স্যান্ডস বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল স্থাপনাগুলোর মধ্যে অন্যতম। মেরিনা বে স্যান্ডসে রয়েছে আবাসিক হোটেল, বিশ্বের সেরা সব ব্র্যান্ডের শোরুম, কৃত্রিম আইস স্কেটিং কোর্ট, রেস্টুরেন্ট, কনভেনশন সেন্টার, থিয়েটার, জিমনেসিয়াম, শপিংমল, ক্যাসিনো, আর্টসায়েন্স মিউজিয়াম এবং মেরিনা বে স্যান্ডস স্কাইপার্ক (Marina Bay Sands Skypark)। স্কাইপার্ক থেকে এক নজরে সমগ্র সিঙ্গাপুর দেখা যায়। ২০০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত জাহাজাকৃতির স্কাইপার্কে আছে পর্যবেক্ষন ডেক এবং ইনফিনিটি পুল। যেকোন দর্শনার্থী স্কাইপার্কের পর্যবেক্ষন ডেকে গিয়ে সিঙ্গাপুর শহর দেখতে পারলেও কেবলমাত্র এখানে আগত হোটেলের অতিথিরা ইনফিনিটি পুল ব্যবহার করতে পারেন।

প্রায় ৬ বিলিয়ন ডলারে নির্মিত মেরিনা বে স্যান্ডস যেন শহরের ভেতর আরও একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ শহর। মেরিনা বে স্যান্ডস থেকে রাতের সিঙ্গাপুর (Singapore) দেখতে খুবই অসাধারণ লাগে। প্রতি বছর শুধুমাত্র ইনফিনিটি পুলে সাতার কাটার জন্য অসংখ্য পর্যটক মেরিনা বে স্যান্ডসে আসেন। এখানে এক রাতের জন্য সর্বনিম্ন রুম ভাড়া ৪৫০ ডলারেরও বেশি। আবার বুকিংয়ের তারিখ অনুযায়ী রুমের ভাড়া পরিবর্তিত হয়।

সিঙ্গাপুর কিভাবে যাবেন

ঢাকা থেকে সরাসরি সিঙ্গাপুরগামী ফ্লাইট রয়েছে। বিমান বাংলাদেশ, মালিন্দ এয়ার, জেট এয়ার ওয়েজ এবং মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্স সহ বেশকিছু বিমান সংস্থার বিমানে সিঙ্গাপুর যেতে পারবেন। এয়ারলাইন্স ভেদে খরচ পড়বে ১৬ থেকে ২৫ হাজার টাকা।

সিঙ্গাপুর এয়ারপোর্ট থেকে বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়ার MRT (Mass Rapid Transit) রয়েছে। মেট্রো রেলের মাধ্যমে ভ্রমণ করলে কম খরচ ও স্বাচ্ছন্দ্যে গন্তব্যে পৌছানো যায়। চাইলে এয়ারপোর্ট থেকেই মেট্রো রেলে চেপে মেরিনা বে স্যান্ডস যেতে পারবেন। এছাড়াও সমগ্র সিঙ্গাপুর জুড়ে রয়েছে অসংখ্য বাস সার্ভিস। বাস বা MRT সার্ভিস ব্যবহার করে সহজেই আপনি আপনার পছন্দমত গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবেন।

সিঙ্গাপুরের ভিসা কিভাবে পাবেন

ঢাকাতে সিঙ্গাপুরের কনস্যুলেট থাকলেও সেখান থেকে সিঙ্গাপুরের ভিসা প্রদান করা হয় না। ভিসার জন্যে আপনাকে অনুমোদিত এজেন্টের সাথে যোগাযোগ করতে হবে এবং অবশ্যই সিঙ্গাপুরে অবস্থানরত কারো কাছ থেকে ভ্রমণের আমন্ত্রণ পেতে হবে। ভিসা ফি ৩০ সিঙ্গাপুরিয়ান ডলার। সিঙ্গাপুরের ভিসা সম্পর্কিত আরো তথ্য জানতে চাইলে পড়ুন : সিঙ্গাপুর ভিসা গাইড

সিঙ্গাপুরে কোথায় থাকবেন

সিঙ্গাপুরে অসংখ্য আবাসিক হোটেল রয়েছে এগুলোতে অগ্রিম বুকিং দিয়ে গেলে আপনার খরচ কিছুটা কমবে। সেন্তোসা এবং মেরিনা বে-তে রাত্রি যাপন বেশ ব্যয়বহুল। সিঙ্গাপুরের মোস্তাফা সেন্টারের কাছে মিনি বাংলাদেশ আছে সেখানের হোটেলগুলোতে কম খরচে থাকতে পারবেন। এছাড়াও লিটল ইন্ডিয়ায় বাজেটের মধ্যে রাতে থাকতে পারবেন।

সিঙ্গাপুরের কিছু হোটেলের নাম ও ফোন নাম্বার:
দ্য রিজ কার্লটন মিলেনিয়া: +65-6337-8888, ইন্টার কণ্টীনেণ্টাল সিঙ্গাপুর: +65-6338-7600, হোটেল ইণ্ডিগো সিঙ্গাপুর: +65-6723-7001, ফোর সিজন্স সিঙ্গাপুর: +65-6734-1110, সেন্ট রেজিস হোটেল: +65-6506-6888, ম্যান্ডারিন ওরিয়েন্টাল: +65-6338-0066, পার্ক রয়্যাল অন পিকারিং: +65-6809-8888, দ্য ফুলারটন হোটেল: +65-6733-8388, নাউমি হোটেল: +65-6403-6000, শাংরি লা হোটেল: +65-6737-3644

সিঙ্গাপুরে কোথায় খাবেন

সিঙ্গাপুরে নানান দেশের বিভিন্ন ধরণের খাবার পাওয়া যায়। এখানে দামি রেস্টুরেন্ট যেমন আছে তেমনি সুলভে খাবার গ্রহণের জন্য আছে হকার্স সেন্টার ও ফুড কোর্ট।

কেনাকাটা

নামীদামী ব্রান্ড শপ থেকে শুরু করে জীবন যাপনে অপরিহার্য্য বিভিন্ন জিনিস কি নেই সিঙ্গাপুরে! সিঙ্গাপুর আমদানি নির্ভর শহর হলেও প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রনিক পন্য কিংবা পোষাক কিনতে পারেন।

সিঙ্গাপুরের ভিসা আবদনের প্রয়োজনীয় তথ্য

  • পাসপোর্টের মেয়াদ থাকতে হবে নূন্যতম ছয় মাস।
  • পাসপোর্টে কমপক্ষে একটি ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকতে হবে।
  • পাসপোর্টে ব্যক্তিগত তথ্যের পাতার একটি ফটোকপি অবশ্যই ভিসা আবেদনপত্রের সাথে সংযুক্ত করে দিতে হবে।
  • অতিসম্প্রতি তোলা ২ কপি পাসপোর্ট (২৫মি.মি.×৩৫মি.মি.) সাইজ ছবি। ছবি যেন কখন দুই মাসের অধিক আগে তোলা না হয়। ছবি রঙ্গিন তবে এর ব্যাকগ্রাউন্ড সাদা হতে হবে।
  • আপনার আমন্ত্রণকারী যদি কোন ব্যক্তি হয় (অনেকক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠান হতে পারে) তাহলে তার থেকে পাওয়া আমন্ত্রণপত্র এবং তার আইডি কার্ডের কপি জমা দিতে হবে।
  • সাধারণ ভ্রমণকারীদের ক্ষেত্রে ‘লেটার অফ ইন্ট্রোডাকশন’ ফর্মটি কমপক্ষে ২১ বয়সের বেশি সিঙ্গাপুরের স্থায়ী নাগরিক দ্বারা ইস্যুকৃত হতে হবে।
  • ব্যবসায়ী ভ্রমণকারীদের সিঙ্গাপুরে রেজিস্টারকৃত সংস্থার স্থানীয় যোগাযোগের ঠিকানা এবং প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধির স্বাক্ষর করা আমন্ত্রণপত্র থাকতে হবে। আর স্বাক্ষরকারী অবশ্যই সিঙ্গাপুরে বাস করে এমন একজন হতে হবে।

শেয়ার করুন সবার সাথে

ভ্রমণ গাইড টিম সব সময় চেষ্টা করছে আপনাদের কাছে হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করতে। যদি কোন তথ্যগত ভুল কিংবা স্থান সম্পর্কে আপনার কোন পরামর্শ থাকে মন্তব্যের ঘরে জানান অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ পাতায় যোগাযোগ করুন।
দৃষ্টি আকর্ষণ : যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের সম্পদ, আমাদের দেশের সম্পদ। এইসব স্থানের প্রাকৃতিক কিংবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করা থেকে বিরত থাকুন, অন্যদেরকেও উৎসাহিত করুন। দেশ আমাদের, দেশের সকল কিছুর প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।
সতর্কতাঃ হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ভাড়া ও অন্যান্য খরচ সময়ের সাথে পরিবর্তন হয় তাই ভ্রমণ গাইডে প্রকাশিত তথ্য বর্তমানের সাথে মিল না থাকতে পারে। তাই অনুগ্রহ করে আপনি কোথায় ভ্রমণে যাওয়ার আগে বর্তমান ভাড়া ও খরচের তথ্য জেনে পরিকল্পনা করবেন। এছাড়া আপনাদের সুবিধার জন্যে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে হোটেল, রিসোর্ট, যানবাহন ও নানা রকম যোগাযোগ এর মোবাইল নাম্বার দেওয়া হয়। এসব নাম্বারে কোনরূপ আর্থিক লেনদেনের আগে যাচাই করার অনুরোধ করা হলো। কোন আর্থিক ক্ষতি বা কোন প্রকার সমস্যা হলে তার জন্যে ভ্রমণ গাইড দায়ী থাকবে না।